রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০৩:১১ পূর্বাহ্ন

মোলাগুলের ৮ ও ৬ নং ওয়ার্ড সহ ইউনিয়নের গ্রামীন সড়কের আতংক এখন ট্রলি-ট্রাক্টর – দৈনিক সিলেট সীমান্ত

মোলাগুলের ৮ ও ৬ নং ওয়ার্ড সহ ইউনিয়নের গ্রামীন সড়কের আতংক এখন ট্রলি-ট্রাক্টর – দৈনিক সিলেট সীমান্ত

এম এ রহমান জীবন কানাইঘাট প্রতিনিধিঃ

তথ্য প্রযুক্তির এ সময়ে জমি চাষাবাদের জন্য অত্যাধুনিক কৃষি যন্ত্রপাতির প্রয়োজনীয়তা থাকলেও ট্রলি, ট্রাক্টর, এর যথেষ্ট অপব্যবহার হচ্ছে। কৃষি কাজে সহায়ক যন্ত্রপাতিগুলোকে যানবাহনে রূপান্তরিত করে কোন প্রকার নিয়ম নীতি না মেনেই গ্রামীণ সড়কগুলোতে অবাধে চলছে ওই সব যানবাহন।

সিলেট জেলার কানাইঘাট উপজেলার ১নং লক্ষীপ্রসাদ পূর্ব ইউ/পির ডাউকেরগুল, কান্দলা, ভালুকমারা সহ বিভিন্ন সড়কে দেখা মিলছে ইট, বালু, পাথর, ও মাটি বহনকারী এই ট্রলি, ট্রাক্টর গুলোর। দিনদিন বেড়েই চলেছে ওই সব অবৈধ যানবাহনের দৌরাত্ন্য। অপরদিকে বেপরোয়া চলাচলের কারনে প্রতিনিয়তই ঘটছে সড়ক দুর্ঘটনা, যার কারণে অনেকেই বরন করতে হচ্ছে পঙ্গুত্ব জীবন।

কৃষি উন্নয়নের লক্ষ্য পূরনে এসব যান বিদেশ থেকে আমদানি করার অনুমতি প্রদান করে থাকেন সরকার। কৃষি কাজের জন্য এসব পাওয়ারট্রিলার ট্রাক্টর মেশিন ক্রয় করা হলেও অসাধু ব্যবসায়ীরা ব্যবহার করছে ইট,বালু, পাথর,মাটি ও সকল প্রকার পণ্যসহ যাত্রী পরিবহনের কাজেও।

এসকল যানবাহন বেপরোয়া গতিতে চলার কারনে যেমন ঘটছে দুর্ঘটনা ঠিক তেমনি পরিবেশ ও শব্দ দূষনের সাথে সাথে দ্রুতই নষ্ট হয়ে পড়েছে গ্রামাঞ্চলের রাস্তাঘাট গুলো। দুষনের কারণে ২০১০ সালে সারা দেশে সব ধরনের ট্রলি চলাচল অবৈধ ঘোষণা করে সরকার এবং ট্রলি আটক করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশও দেয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় কিন্তু সেই আইনের কোন তোয়াক্কা না করে প্রশাসনের চোখ ফাঁকি অবাধ বিচরণ করছে লাইসেন্স বিহীন চালক দ্বারা চালিত অবৈধ ভয়ংকর এই বাহনগুলো।

এসব গাড়ির নেই কোন ফিটনেস ও রেজিষ্ট্রেশন, নেই কোন হর্ণ ও গতি নিয়ন্ত্রক। এসব গাড়ির বিকট শব্দে পথচারী সহ এলাকাবাসীও অতিষ্ঠ।

এসব গাড়ি চালাতে লাগছেনা কোন প্রকার ড্রাইভিং লাইসেন্স। যার দরুন প্রতিনিয়ত সড়ক দুর্ঘটনা বেড়েই চলছে। শ্যালোমেশিনের ইঞ্জিনকে ব্যবহার করে এসব ভটভটি, ট্রলি, গাড়ি স্হানীয় বাজারের ওয়ার্কশপগুলোতে দেদারছে তৈরি হচ্ছে এসব গাড়ি।

এ বিষয়ে পথচারীরা বলেন, ইট, বালু, পাথর, মাটি ভর্তি এসব গাড়ির পেছনে রাস্তায় চলাচল অসম্ভব ও বিপদজনক। বেপরোয়া গতি ও বিকট শব্দে পরিবেশ ও সড়কগুলোর মারাত্নক ক্ষতি হচ্ছে এবং প্রতিনিয়তই ঘটছে দুর্ঘটনা। গ্রামীণ রাস্তাঘাট গুলো চলাচলের জন্য অনুপযোগী হয়ে পড়েছে এসব যানবাহনের কারনেই। আর সবসময় প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়েই চলাচল করছে এ ধরনের সকল যানবাহন।

এসব গাড়ির অবিরত চলাচলের কারনে দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে মোলাগুলের ৮ ও ৬ নং ওয়ার্ড ডাউকেরগুল গ্রামবাসী সহ অত্র এলাকার পথিকের জীবন। অবৈধ এই যানবাহন গুলো বন্ধের দাবীতে প্রশাসনের যথাযথ পদক্ষেপ কামনা করছেন মোলাগুলের ৮ ও ৬ নং ওয়ার্ডের পথচারী ও এলাকার সচেতন মহল। জানা যায় এলাকার কিছু অসাধু ব্যবসায়ী যারা নিজের স্বার্থ হাসিলের উদ্দেশ্যে নদীপথে বিভিন্ন পণ্য স্টিল বডি ও নৌকা দিয়ে কান্দলা কোনাপাড়া জামে মসজিদের ঘাটে স্টক করে সেখান থেকে এই ট্রাক্টর দিয়ে এলাকার বিভিন্ন গ্রাম গঞ্জে ইট বালু পাথর সহ বিভিন্ন পণ্য সরবরাহ করে থাকে আর এইজন্যই দিন দিন নষ্ট হয়ে যাচ্ছে অত্র এলাকার প্রধান এই রাস্তাটি যার কারণে প্রতিনিয়ত এই এলাকার মানুষের ভোগান্তির যেন শেষ নেই। কারা এই সব কাজে জড়িত হয়ে এলাকার পরিবেশ দূষণ করছে এই সকল অসাধু ব্যবসায়ীদের তালিকা শীঘ্রই পরবর্তী প্রতিবেদনে আসছে।

Please Share This Post in Your Social Media

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

  • © All rights reserved © 2021 sylhetshimanto.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com